January 12, 2022, 5:21 pm

News Headline :
বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে রংপুর মহানগর ছাত্রলীগের বিজয় শোভাযাত্রা ঢাবি ভর্তি পরীক্ষায় শিক্ষার্থীদের সহায়তায় রংপুর মহানগর ছাত্রলীগ ২১ শে আগষ্ট গ্রেনেড হামলার আসামীদের শাস্তির দাবীতে রংপুর মহানগর ছাত্রলীগের মানব বন্ধন শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবসে রংপুর মহানগর ছাত্রলীগের দোয়া মাহফিল রংপুর মহানগর ছাত্রলীগ ১৯নং ওয়ার্ড শাখার উদ্যোগে সেহরি বিতরণ অসহায় মানুষের মাঝে ৩০নং ওয়ার্ড রংপুর মহানগর ছাত্রলীগের ঈদ উপহার বিতরণ রংপুর মহানগর আওতাধীন ০৫ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সেমাই ও চিনি বিতরণ রংপুর মহানগর আওতাধীন ১৯নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের উদ্যোগে ইফতার বিতরণ রংপুর মহানগর ছাত্রলীগের আওতাধীন ০১নং ওয়ার্ড শাখার উদ্যোগে ইফতার বিতরণ রংপুর মহানগর আওতাধীন ১২নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের উদ্যোগে ইফতার বিতরণ
দরিদ্রতা থামাতে পারেনি শুভ্রজিৎ এর কৌতুক !

দরিদ্রতা থামাতে পারেনি শুভ্রজিৎ এর কৌতুক !

প্রশান্ত কুমার রায়, লালমনিরহাট প্রতিনিধি:

চরম দারিদ্রতা কোনোভাবেই থামাতে পারেনি তার অদম্য ইচ্ছা ও তার মেধাশক্তি। তবে এনটিভির হাশোতে কৃতিত্বের সাথে সুযোগ পায়। এনটিভির হাশোতে সেমিফাইনাল লিষ্ট হয় শুভ্রজিৎ রায়। দরিদ্র মুদি বাবার সন্তান হয়েও এবারের হাশোতে অসামান্য সাফল্য লাভ করে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন,লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ ঘনশ্যাম এলাকার শুভ্রজিৎ রায় ।

দারিদ্রতার এই চরম অভিশাপ থেকে মুক্ত করতে এবং এই অভিশাপ কাটিয়ে সমাজে কিছু দিতে শুভ্রজিৎ রায় স্বপ্ন দেখেন বড় হয়ে অভিনেতা হওয়ার।

স্বল্প এই রোজগার দিয়ে সংসারে নুন আনতে পান্তা ফুরায় তার পিতার ।

এরই মধ্যে ছোট থেকেই ছেলে অভিনেতা হওয়ার স্বপ্ন দেখলে অভাবের এই সংসারে চোখে মুখে অন্ধকার দেখেন তিনি। ছোটবেলা থেকেই ছেলের কোন আবদার না থাকলেও তার একটিই আবদার বড় হয়ে সে অভিনেতা হবে। ছেলের অভিনেতা হওয়ার স্বপ্ন ও ইচ্ছা মাঝে মাঝে তাকে বিমর্ষ করে। দারিদ্র-পীড়িত এই সংসারে কী করে এটা সম্ভব?

ছেলেকে অভিনেতা করবেন?-এখন এ চিন্তাই বাবা-মার।

দারিদ্রতার অভিশাপ,তাদের এই স্বপ্ন-দুঃস্বপ্নে পরিণত হবে না-তো? এমন আশংকা তার। এজন্য ছেলে ও পরিবারের এই স্বপ্ন বাস্তরে রূপ দিতে দেশবাসী ও বিত্তবানদের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

শুভ্রজিৎ রায়ের মা জানান, দারিদ্র-পীড়িত এই সংসারে স্বামীর রোজগার দিয়ে নিয়মিত উনুন (চুলা) জ্বালাতে গিয়েও মাঝে মাঝে হোচট খেতে হয়। কিন্তু এরপরও তিনি স্বপ্ন দেখেন, তারা যে কষ্ট করছে-তাদের সন্তানদের যাতে এরকম কষ্ট না করতে হয়।

তার মা আরও বলেন, ভগবান যাতে হামার শেষ ইচ্ছা পূরণ করেন।’ ছেলে যাতে অভিনেতা হয়।

এলাকাবাসী জানান, এরকম মেধাবী কৌতুক অভিনেতা সমাজে খুবই বিরল। তবে ছোটবেলা থেকেই তার যে প্রবল ইচ্ছাশক্তি ও মেধা, তাতে তারা মনে করেছিলেন, বাবা-মায়ের দারিদ্রতা তার এই ইচ্ছা শক্তিকে কখনই থামাতে পারবে না। আজ তা সত্যিতে রূপান্তরিত হয়েছে। শুভ্রজিৎ একজন ভালো অভিনেতা হয়ে উচ্চ শিখরে আরোহন করবে বলে এলাকাবাসীর বিশ্বাস। এ জন্য তাকে উৎসাহ যোগাতে সমাজের বিত্তবানদের সহযোগিতা কামনা করেন তারা।






Privacy policy

Desherkhobor24 2016-2020© All rights reserved.

<