October 24, 2020, 6:32 am

News Headline :
খেলাধুলার মাধ্যমে সমাজ থেকে মাদক নির্মূল সম্ভব–সাকিব মাহাবুব। খেলাধূলায় বাড়ে বল, মাদক ছেড়ে খেলতে চল -আবু হানিফ চয়ন।  কাকিনার সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান মজনু আলী শেখকে ফোনে হত্যার হুমকি,থানায় ডায়েরি দায়ের দুর্গাপূজার শুভেচ্ছা জানালেন ছাত্রনেতা প্রহলাদ রায় দূর্গাপূজার শুভেচ্ছা জানালেন অসীম কুমার করোনাকালে ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের (অধ্যয়নরত) আর্তনাদ মাদক,ইভটিজিং মুক্ত সমাজ গড়তে খেলাধুলার কোনো বিকল্প নেই – আবু হানিফ চয়ন দরিদ্রতা থামাতে পারেনি শুভ্রজিৎ এর কৌতুক ! দূর্গাপূজার শুভেচ্ছা জানালেন আবু হানিফ চয়ন। ধর্ষণের প্রতিবাদে রংপুর মহানগর ছাত্রলীগের মোমবাতি প্রজ্জ্বালন
পানিবন্দি মানুষদের মাঝে রংপুর সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের খাদ্য দ্রব্য বিতরণ

পানিবন্দি মানুষদের মাঝে রংপুর সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের খাদ্য দ্রব্য বিতরণ

Anis Rangpur Govt college Bsl

গত ২৭ সেপ্টেম্বর রাতভর বৃষ্টিতে পানিবন্দী হয়ে রংপুর মহানগরীর বেশির ভাগ ওয়ার্ড। ঘরবাড়ি পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ায় সাধারণ মানুষ ঠাই নিয়েছেন বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ উঁচু জায়গায়। তারই ধারাবাহিকতায় রংপুর মহানগরীর স্বনামধন্য বিদ্যাপীঠ রংপুর সরকারি কলেজ ক্যাম্পাসে অবস্থান করছে কিছু পরিবার।

এমন পরিস্থিতিতে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে রংপুর সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহবায়ক মোঃ আনিছুর রহমান আনিছ। নিজ উদ্যাোগে তিনি আজ রংপুর সরকারি কলেজ ক্যাম্পাসে ঘরহীন মানুষের কাছে খাদ্যদ্রব্য বিতরণ করেন।

টানা ১০ ঘণ্টা বৃষ্টিতে রংপুর মহানগরসহ জেলার অধিকাংশ এলাকা পানিতে তলিয়ে গেছে। এত নগরীর প্রায় ৫০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। প্রধান সড়ক থেকে শুরু করে পাড়া-মহল্লার অলিগলি সবই পানিতে ডুবে গেছে। বাদ পড়েনি বাড়িঘরও। কোথাও কোমর পানি, কোথাও হাঁটু পানি।

রংপুর আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, গতকাল শনিবার রাত ১০টা থেকে আজ রোববার সকাল ১০টা পর্যন্ত ৪৩৩ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে, যা এত অল্প সময়ে গত ১০০ বছরেও এমন বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়নি। এমন বৈরী আবহাওয়া ও বৃষ্টিপাত আরও দু-একদিন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

রাতভর অবিরাম বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনের একমাত্র অবলম্বন শ্যামা সুন্দরী ও কেডি ক্যানেল। ভেঙে পড়েছে নগরীর ড্রেনেজ ব্যবস্থা। পানি নিষ্কাশনের সুযোগ না থাকায় পানির মধ্যেই চলছে যাতায়াত।

Rangpur Govt College Anis

নগরবাসী বলছেন, ২৫-৩০ বছরেও এমন বৃষ্টিপাত দেখেননি তারা। ১৯৮৮ সালের ভয়াবহ বন্যাতেও এমন জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়নি। পানিবন্দি মানুষ উদ্ধারে সকাল থেকে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস।

জেলার তিস্তা, করতোয়া, ঘাঘট, যমুনেশ্বরী নদী বিধৌত নিম্নাঞ্চলে আবারও দেখা দিয়েছে বন্যা। তিস্তার ডালিয়া ও কাউনিয়া পয়েন্টে বিপৎসীমার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। ভারি বর্ষণ ও বজ্রপাতে জেলার বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। কৃষি জমি, ফসল আর পুকুর-বিল তলিয়েছে পানিতে।

রংপুর আবহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘বৃষ্টি আরও দু-একদিন অব্যাহত থাকতে পারে। তবে এভাবে বৃষ্টিপাত হলে নগরীর বেশির ভাগ এলাকা তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।’

পানি উন্নয়ন বোর্ড এবং ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সূত্র জানিয়েছে, নগরীর পানি নিষ্কাশনের অন্যতম শ্যামা সুন্দরী ক্যানেল বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। তবে ক্যানেলের পানি কমে আসলে ড্রেনেজ ব্যবস্থার মাধ্যমে পানিবন্দি এলাকাগুলো থেকে পানি নেমে আসবে।






Privacy policy

Desherkhobor24 2016-2020© All rights reserved.

<